নতুন বাংলাদেশ

নতুন দৃষ্টিতে বাংলাদেশ

প্রথম পাতা > নির্বাচিত প্রবন্ধ > হুজি, আওয়ামীলীগ ও কিছু সত্যকথা

হুজি, আওয়ামীলীগ ও কিছু সত্যকথা

20 August 2019, A K M Wahiduzzaman PrintShare on Facebook

শেখ হাসিনা এবং তাঁর "চাটোয়া" বাহিনী বোমা হামলার কথা উঠলেই বিএনপি-জামাত বলতে বলতে ফেনা তুলে ফেলে। অথচ ইতিহাস, তথ্য-প্রমাণ এবং পরিসংখ্যান বলে যে শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগের রাজত্বে জঙ্গিরা সবচেয়ে বেশি হামলা করেছে এবং সবচেয়ে বেশি মানুষ মেরেছে।

কিছু সত্য ফেইস করি আজকেঃ

শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত বর্তমান সরকারের ধর্মমন্ত্রী শেখ মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহর সহায়তায় মুফতি হান্নানকে গোপালগঞ্জ বিসিকে ১৯৯৭ সালে জমি দেয় আওয়ামী লীগ সরকার। সেখানে নির্বিঘ্নে বোমা তৈরি করে উদীচী, বানিয়ারচর, নারায়ণগঞ্জে বোমা ফাটায় মুফতি হান্নান। (১)

আওয়ামী লীগের নিজেদের স্থাপনা-মিটিংগুলাতে বোমা ফাটিয়ে আওয়ামী লীগ বহির্বিশ্বের কাছে নিজেদের "ভিক্টিম" হিসেবে দেখানোর চেষ্টা করতো তখন। শেখ হাসিনার হেলিপ্যাড এবং বক্তৃতার মাঠেও বোমা পুঁতে রাখে এই উদ্দেশ্যেই। পরে নিজেরাই আবার সেইগুলা উদ্ধার করে।

পুলিশ যাওয়ার আগেই শেখ আব্দুল্লাহ তাঁর লোক মুফতি হান্নানকে বলেও দেয় রেইডের কথা। মুফতি হান্নান ২০১০ সালে নিজ মুখে, সাংবাদিকদের সামনে প্রকাশ্যে এইগুলা স্বীকার করছে। (২)

অন্যদিকে ২০০২ থেকে ২০০৬ দেখেন। প্রথম দিকের হামলাগুলো ছিল প্রায় বিচ্ছিন্ন। ২০০৩ সালের ৩০ ডিসেম্বর মুফতি হান্নানের অনুপস্থিতিতেই বিচারে যাবজ্জীবন দেয়া হয় তাকে। ২০০৫ সালের পর মুফতি হান্নানকে গ্রেপ্তার করা হয়। ২০০৫ সালের ১৭ অক্টোবর নিষিদ্ধ করা হয় হরকাতুল জিহাদ বাংলাদেশ তথা হুজি-বিকে। (৩)

এখন এই প্রশ্নগুলার উত্তর দেন একটুঃ

ক) হুজির প্রথম বোমা হামলা হয় কত সালে, এবং তখন কারা ক্ষমতায় ছিল?
খ) ১৯৯৯ সালের উদীচীর হামলা থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত কতটি বোমা হামলা হয়? ২০০২ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত কতগুলা বোমা হামলা হয়?
গ) হুজিকে শেল্টার দিয়ে তৈরি করছে কে?
ঘ) অন্য ধর্মের স্থাপনার উপর সবচেয়ে বেশি হামলা হইছে কোন আমলে?
ঙ) কোন আমলে বোমা হামলায় বেশি মানুষ মারা গেছে? আওয়ামী লীগ না বিএনপি?
চ) কোন সরকারের আমলে মুফতি হান্নানকে গ্রেপ্তার করা হয়?
ছ) কোন সরকার ক্ষমতায় থাকতে মুফতি হান্নানকে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়?
জ) হুজি-বিকে নিষিদ্ধ করে কোন সরকার?

কি, উত্তর কি বলে? না মিললে আমি বলে দেই। মিলায় নেন এইবার।

১৯৯৯ সালে হুজি-বি প্রথম হামলা চালায়, উদীচীর অনুষ্ঠানে।
আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে সর্বোচ্চ সাতবার হামলা চালায় তারা। ২০০১ সালের সেপ্টেম্বরের হামলাও আওয়ামী লীগের উদাসীনতার ফসল। বিএনপির আমলে হামলা হয় পাঁচবার।
হুজি-বির শেল্টার দিত বর্তমান ধর্মমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ।
অন্য ধর্মের স্থাপনায় সবচেয়ে হামলা হয়েছে আওয়ামী লীগের আমলে।
আওয়ামী লীগের আমলে বোমা হামলায় মারা যায় ৬৬ জন, বিএনপির সময় ৩২ জন।
মুফতি হান্নান গ্রেপ্তার হয় ২০০৫ সালে বিএনপি সরকারের হাতে।
তার অনুপস্থিতিতে ২০০৩ সালে বিএনপি সরকার তার বিচারের ব্যবস্থা করে যাবজ্জীবন দেয়।
২০০৫ সালে বিএনপিই হুজি-বিকে নিষিদ্ধ করে।

সম্পূরক তথ্যঃ সাউথ এশিয়ান টেরোরিজম পোর্টাল বলছে, আওয়ামী লীগের আমলে ২০১৪ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত জঙ্গি হামলায় মোট মারা গেছে ১০৯ জন। এই সময়ে হামলা হয়েছে আহমাদিয়া সম্প্রদায়ের মসজিদে, শিয়াদের ইমামবাড়ায়, মন্দিরে, গীর্জার পাদ্রির উপর, বৌদ্ধ ধর্মগুরুর উপর, ভিন্ন মতাবলম্বী পীরদের উপর।

এইবার নিজেরাই বিচার করেন, জঙ্গিবাদের আশ্রয়দাতা কারা? বোমাবাজ কারা?

1) https://www.thedailystar.net/frontpage/bnps-rejoinder-our-reply-1392544
2) https://www.thedailystar.net/news-detail-138377
3) https://bdnews24.com/bangladesh/2005/09/30/mufti-hannan-arrested1

Keywords

- - -